Google Oneindia Bengali News

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে নিয়ে বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

পশ্চিমবঙ্গ

oi-সঞ্জয় ঘোষাল

গুগল ওয়ানইন্ডিয়া বাংলা খবর

রাজভবন ও বিধানসভার সংঘর্ষের মধ্যে এ বার হলের মধ্যে ঢুকছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যপালের পদ নিয়ে আলোচনা করতে বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন তিনি। সব ঠিকঠাক থাকলে সোমবার বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে বৈঠক করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যপাল এখন বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে মমতার বৈঠক নিয়ে জল্পনা করছেন।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈঠকে রাজ্যপালের বিষয়টিও উঠে আসবে বলা যায়। সম্প্রতি রাজ্যপাল জগদীপ ধনখরের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি লিখেছেন বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রেক্ষাপটে মুখ্যমন্ত্রী এবং বিধানসভার স্পিকারের মধ্যে বৈঠককে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্য সরকারের দ্বন্দ্ব। জগদীপ ধনখার রাজ্যপালের দায়িত্ব নেওয়ার পরে বিরোধ আরও বেড়ে যায়। সেই দ্বন্দ্ব আজও শেষ হয়নি। বিভিন্ন ইস্যুতে রাজভবন ও রাজ্য সরকারের মধ্যে বিরোধপূর্ণ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেই লড়াইয়ে ফের যোগ হয়েছে রাজভবন বনাম বিধানসভা সংঘর্ষ।

সম্প্রতি হাওড়া ও বালি পুরসভার ভোট নিয়ে রাজ্যপাল ও রাজ্য সরকারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চরমে পৌঁছেছে। শুক্রবার হাইকোর্টে, অ্যাডভোকেট জেনারেল হাওড়া বিলটিতে রাজ্যপালের স্বাক্ষরের বিষয়ে কথা বলেছিলেন, তবে সন্ধ্যায় বিরোধী দলের নেতা শুভেন্দু অধিকারীর সাথে দেখা করার পরে, রাজ্যপাল বলেছিলেন যে তিনি বিলে স্বাক্ষর করেননি।

এরপর শুভেন্দু অধিকারীর কথায় ট্যুইট করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফলে রাজ্যপাল ও রাজ্য সরকারের মধ্যে দ্বন্দ্ব চরমে ওঠে। এই প্রসঙ্গে বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে বৈঠকে বসতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে এই বৈঠকে রাজ্যপালের বিষয়টি উঠে আসবে।

বৈঠকে বিধানসভা সচিবালয়ের ক্ষমতা নিয়েও আলোচনা হবে। এখন পর্যন্ত সংসদ সচিবালয় ও সংসদের স্পিকারের যাবতীয় কাজ সংসদীয় অফিসের মাধ্যমে করতে হতো। এর সরলীকরণ নিয়েও এই বৈঠকে আলোচনা হবে। মুখ্যমন্ত্রী ও স্পিকার ছাড়াও রাজ্যের বিশিষ্ট আইনজীবীরাও উপস্থিত থাকবেন। তারা আলোচনার বিভিন্ন বিষয়ে পরামর্শ দেবেন। তবে এ বৈঠকের বিষয়ে কোনো কথা বলেননি সচিবালয়ের কর্মকর্তারা। এই বৈঠকের কারণ নিয়ে কেউ কথা বলছেন না।

রাজ্যপালের সঙ্গে দ্বন্দ্বের জেরে বিধানসভায় বেশ কিছু বিল আটকে আছে। রাজ্যপাল রাজ্য সরকারকে সহযোগিতা করছেন না। এ বিষয়ে সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে চায় রাষ্ট্র। গণপিটুনি বিলের মতোই রাজভবনে আটকে আছে হাওড়া পৌরসভা সংশোধনী বিল। রাজ্যপালের স্বাক্ষর না হলে হাওড়া ও বালি পৌরসভায় ভোটগ্রহণ সম্ভব হবে না।

ইংরেজি সারাংশ

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে নিয়ে বিধানসভার স্পিকারের সঙ্গে বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

গল্প প্রথম প্রকাশিত: শনিবার, 25 ডিসেম্বর, 2021, 17:26 [IST]

Leave a Comment