মেয়র পদে ফিরহাদই এগিয়ে!  কিন্তু মন্ত্রিত্ব হারাতে হবে না!  বিপুল জয়ের পর কলকাতা মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের মেয়র হতে এগিয়ে ফিরহাদ হাকিম।

মেয়র পদে ফিরহাদই এগিয়ে! কিন্তু মন্ত্রিত্ব হারাতে হবে না! বিপুল জয়ের পর কলকাতা মিউনিসিপ্যাল ​​কর্পোরেশনের মেয়র হতে এগিয়ে ফিরহাদ হাকিম।

নীতিমালা ভঙ্গ করে মন্ত্রী, সাংসদ, বিধায়কদের টিকিট

‘এক ব্যক্তি, এক পদ’ নীতি চালু করে দলের মধ্যে পদ বণ্টনের প্রক্রিয়া শুরু করেছে তৃণমূল। কিন্তু গণভোটের প্রাক্কালে সেই নীতি ভেঙ্গে চুরমার হয়ে যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই নীতি ভেঙে মন্ত্রী, সাংসদ ও বিধায়কদের টিকিট দিয়েছেন। ফলে কলকাতা উপনির্বাচনে ফের প্রার্থী হলেন ফিরহাদ হাকিম ও মালা রায়।

দুই পদে মন্ত্রী-মেয়র হিসেবে অভিষেক হবে ফিরহাদের!

দুই পদে মন্ত্রী-মেয়র হিসেবে অভিষেক হবে ফিরহাদের!

এবার মেয়র নির্বাচনের পালা। পুরোনো নীতি কি এখন কার্যকর হবে, নাকি সেই নীতিকে জলাঞ্জলি দিয়ে ফিরহাদ বা অন্য কেউ মন্ত্রী এবং মেয়র হিসাবে উদ্বোধন করবেন? শুধু মেয়র পদই নয়, ডেপুটি মেয়র, চেয়ারম্যান বা চেয়ারপারসন ও মেয়র পরিষদের সদস্য পদ নিয়েও গুঞ্জন ছড়াতে শুরু করেছে।

বাস্তবকে গুরুত্ব দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বাস্তবকে গুরুত্ব দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ফিরহাদকে প্রার্থী করতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, সব ক্ষেত্রে নীতি থাকা সম্ভব নয়। মাঝে মাঝে বাস্তবতা বুঝতে হয়। সেই বাস্তবতা উপলব্ধি করে প্রার্থী করা হয়েছে ফিরহাদকে। তিনি বাস্তবতা বুঝে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন বলে স্পষ্ট। মেয়র নির্বাচনের আগেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাস্তবতাকে গুরুত্ব দেবেন বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক মহল।

মেয়র পদে এগিয়ে ফিরহাদ হাকিম

মেয়র পদে এগিয়ে ফিরহাদ হাকিম

বৃহস্পতিবার বিকেলে মহারাষ্ট্রের বাসভবনে নবনির্বাচিত কাউন্সিলরদের সঙ্গে বৈঠক করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিষেক ব্যানার্জি। কলকাতার বিধায়ক ও সাংসদরাও বৈঠকে যোগ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। এই বৈঠকে মেয়র ও চেয়ারপারসনের নাম চূড়ান্ত করা হবে। মেয়র পদে এগিয়ে ফিরহাদ হাকিম। তবে মেয়র নির্বাচিত হলে তিনি মন্ত্রিত্বে থাকবেন কি না তা নিয়ে আলোচনা জোরদার হচ্ছে।

মেয়র পদে নতুন মুখ আনার পরামর্শও রয়েছে

মেয়র পদে নতুন মুখ আনার পরামর্শও রয়েছে

তবে মেয়র বা চেয়ারপারসন পদে পুরনো মুখকে গুরুত্ব দিলেও মেয়র পদে নতুন লোক আনার ভাবনা রয়েছে তৃণমূলের। মেয়র পদে নতুন মুখ আনার পরামর্শও রয়েছে। দেখা যাক সেই পরামর্শ কীভাবে নেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওয়ান ম্যান পলিসির পাশাপাশি নতুন মেয়র নির্বাচনের কথাও আছে।

এবার ফিরহাদকে মেয়র পদে প্রার্থী করেনি তৃণমূল

এবার ফিরহাদকে মেয়র পদে প্রার্থী করেনি তৃণমূল

এর আগে সুব্রত মুখোপাধ্যায় বা শোভন চট্টোপাধ্যায়ের আমলে তাঁরাই মেয়রের প্রজেক্ট ছিলেন। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল জিতলে তারাই মেয়র হবেন বলে ঘোষণা দিয়ে নির্বাচনে গিয়েছিলেন। তৃণমূলের কাছে হেরে দ্বিতীয়বার মেয়র হতে পারেননি সুব্রত, আর শোভন দ্বিতীয়বার মেয়র হয়েছেন। তবে মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই তাকে পদত্যাগ করতে হয়েছে। এবার ফিরহাদকে মেয়র প্রার্থী করে নির্বাচনে লড়েনি তৃণমূল। এমনকি তার প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনাও ছিল না। শেষ পর্যন্ত মমতার হস্তক্ষেপে তিনি প্রার্থী হন। এখন দেখা যাক মেয়র পদের লড়াই কোথায় যায়!

Leave a Comment