Google Oneindia Bengali News

মতুয়ারা বিজেপি ছাড়তে চলেছেন বলে জানিয়েছেন ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক।

পশ্চিমবঙ্গ

oi-সঞ্জয় ঘোষাল

গুগল ওয়ানইন্ডিয়া বাংলা খবর

বিজেপির পাঁচ মতুয়া সম্প্রদায়ের বিধায়ক হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে যাওয়ার পরে আরও ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। বিজেপি রাজ্য কমিটি ও সাংগঠনিক জেলা সভাপতি পদে মতুয়াদের গুরুত্ব না দেওয়ায় তারা বিদ্রোহী হয়ে ওঠে। এরপরই এল অল ইন্ডিয়া মতুয়া ফেডারেশনের তাৎপর্যপূর্ণ বার্তা। যা বিজেপির প্রতি অবিশ্বাসের সূচক বলে মনে করা হচ্ছে।

মতুয়ারা কি বিজেপি ছাড়ছেন, ফেসবুক পোস্টে জল্পনা

অল ইন্ডিয়া মতুয়া ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক সুখেন্দু গাইন সম্প্রতি একটি ফেসবুক পোস্ট করেছেন। তার ফেসবুক পোস্ট নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। তিনি একটি ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন যে অল ইন্ডিয়া মতুয়া ফেডারেশন আর কোনও নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করবে না। আরেকটি পোস্টে বলা হয়েছে- মতুয়াদের বঞ্চিত করা হচ্ছে। আগামী দিনের জন্য প্রস্তুত হন। মতুয়ারাও বঞ্চিত করার ক্ষমতা রাখে।

মতুয়া ফেডারেশনের তরফে দম্পতির ফেসবুক পোস্টের পর জল্পনা শুরু হয়েছে, তবে কি বিজেপি ছাড়তে চলেছেন মতুয়া? তাই কী জোরালো বার্তা দিয়েছে সংগঠনটি। এই মুহূর্তে ঠাকুরবাড়ির দুই সদস্য মমতাবালা ঠাকুর এবং শান্তনু ঠাকুর মতুয়া ফেডারেশন পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছেন। এ নিয়ে দুই পরিবারের মধ্যে বিরোধ চলছে। মতুয়া সম্প্রদায় দুজনের নেতৃত্ব মেনে চলে।

মমতাবালা ঠাকুর সর্বভারতীয় মতুয়া ফেডারেশনের সভাপতি। সাধারণ সম্পাদক সুখেন্দ্রনাথ গাইন। সুখেন্দ্রনাথই ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে জল্পনা বাড়িয়েছিলেন। চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। তিনি মতুয়াদের বঞ্চনার জন্য অভিযুক্ত করেছিলেন এবং স্পষ্ট করে দিয়েছিলেন যে অল ইন্ডিয়া মতুয়া ফেডারেশন আর কোনও নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলকে সমর্থন করবে না।

এই ফেসবুক পোস্টের পর অবশ্য সুখেন্দ্রনাথ গাইন বলেন, এটা সম্পূর্ণ আমার ব্যক্তিগত মতামত। আমরা মোট 11টি দাবি নিয়ে বিজেপিকে সমর্থন করেছি। কিন্তু এখন পর্যন্ত এর কোনোটাই পূরণ হয়নি। সব ক্ষেত্রে মতুয়াদের বঞ্চিত করা হয়েছে। সাংগঠনিক ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ পদেও তাদের যথাযথ সম্মান দেওয়া হয়নি।

বিজেপির বনগাঁ সাংগঠনিক জেলায় মতুয়া অধ্যুষিত। 2019 সালের লোকসভা নির্বাচনে এবং 2021 সালের বিধানসভা নির্বাচনে, বিজেপি মতুয়া ঠাকুরবাড়ির দুই ছেলে এবং মতুয়া আত্মীয়কে প্রার্থী করেছিল। তারাই বিজয়ী। কিন্তু মতুয়ারা রয়ে গেল বঞ্চিতদের দলে। এরপর বিজেপির সাংগঠনিক রদবদল থেকেও বঞ্চিত হন মতুয়ারা। বনগাঁ সাংগঠনিক জেলার চার মতুয়া বিধায়ক এবং রানাঘাট দক্ষিণের বিজেপি বিধায়ক হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়েছেন। এরপর ফেসবুক পোস্টে গর্জে ওঠেন মতুয়া ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ড.

ইংরেজি সারাংশ

সাধারণ সম্পাদকের ফেইসবুক পোস্টের পর বিজেপির জল্পনার সঙ্গে সম্পর্ক ত্যাগ করতে পারেন মতুয়ারা।

গল্প প্রথম প্রকাশিত: রবিবার, ডিসেম্বর 26, 2021, 17:31 [IST]

Leave a Comment