বিজেপিতে নতুন যুদ্ধ শুরু!  রাজ্য কমিটি এবং জেলা স্তরের নেতৃত্বে রদবদল করার পরে বিজেপি এখন নতুন সমস্যার মুখোমুখি।

বিজেপিতে নতুন যুদ্ধ শুরু! রাজ্য কমিটি এবং জেলা স্তরের নেতৃত্বে রদবদল করার পরে বিজেপি এখন নতুন সমস্যার মুখোমুখি।

রাজ্য সভাপতি বদলের পর নতুন রাজ্য কমিটি

একুশে নির্বাচনের পর বিজেপির রাজ্য সভাপতি হন সুকান্ত মজুমদার। দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে সুকান্ত মজুমদারকে রাজ্য বিজেপিতে আনার পর মনে হল, এবার বিজেপি উত্তরবঙ্গকে বেশি গুরুত্ব দিতে চাইছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত রাজ্য সভাপতি বদল হলেও রাজ্য কমিটি গঠিত হয়নি। এখন পর্যন্ত একটি নতুন রাজ্য কমিটি গঠন করা হয়েছে।

দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ নেতারা জেলার প্রধান

দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ নেতারা জেলার প্রধান

স্বাভাবিকভাবেই রাজ্য কমিটিতে দিলীপের ভিড় হালকা হয়ে গেল। দিলীপের ঘনিষ্ঠ নেতাদের সরিয়ে অনেক নতুন মুখ আনা হয়েছিল। কিন্তু খারাপ প্রভাব পড়তে পারে ভেবে তাড়াহুড়ো করে জেলা সভাপতিকেও বদল করা হয়। সেখানে গুরুত্ব পেয়েছেন দিলীপের ঘনিষ্ঠরা। দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ অনেক নেতাই জেলার মাথায় বসেন।

দিলীপ ঘোষও শুভেন্দু অধিকারীর শাসক

দিলীপ ঘোষও শুভেন্দু অধিকারীর শাসক

বিজেপির এই রদবদলে প্রথমেই বলতে হবে দুটি মেদিনীপুরের কথা। দুই মেদিনীপুর জেলায় জেলা সভাপতি পদে নিযুক্ত হয়েছেন দিলীপ ঘোষের অনুগামীরা। পশ্চিম মেদিনীপুর দিলীপ ঘোষের বাড়ি জেলা। দিলীপ ঘোষ সেখানে সবচেয়ে কাছের জেলা সভাপতি হবেন, তবে দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ গড় নেতা শুভেন্দু অধিকারীর মাথায়ও বসানো হয়েছে।

দুই সাংগঠনিক জেলায় গড়ে শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ দিলীপ

দুই সাংগঠনিক জেলায় গড়ে শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ দিলীপ

পূর্ব মেদিনীপুরের দুই সাংগঠনিক জেলার সভাপতি হয়েছেন দিলীপের ঘনিষ্ঠরা। তপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিজেপির তমলুক সাংগঠনিক জেলার সভাপতি নিযুক্ত করা হয়েছে। তিনি একজন প্রাক্তন সিপিএম নেতা ছিলেন। লক্ষ্মণ শেঠ ঘনিষ্ঠ নেতা। তিনি লক্ষ্মণ শেঠের সাথে বিজেপিতে যোগ দেন এবং জেলা কমিটির সদস্য হন। পরে জেলা সভাপতি হন। মহিষাদলের বাসিন্দা তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জেলায় দিলীপ ঘোষের ঘনিষ্ঠ নেতা হিসেবে পরিচিত। তিনি এবার জেলা সভাপতি হয়েছেন। তমরুকের সাংগঠনিক জেলা সভাপতি নবারুন নায়েককে দলের রাজ্য সম্পাদক করা হয়েছে।

বিজেপির সাংগঠনিক পদে জায়গা পাননি শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ নেতারা

বিজেপির সাংগঠনিক পদে জায়গা পাননি শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ নেতারা

দিলীপের ঘনিষ্ঠ নেতা সুধাম পণ্ডিত কাঁথির জেলা সভাপতি নিযুক্ত হয়েছেন। সুদাম অবশ্য দীর্ঘদিনের বিজেপি কর্মী। তিনি দলের জেলা সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। বিজেপির কাঁথি জেলা সভাপতি অনুপ চক্রবর্তীকে সরিয়ে নতুন জেলা সভাপতি নির্বাচিত করা হয়েছে। আগ্রার সাত মাইল এলাকার বাসিন্দা সুদাম পণ্ডিত। এই জেলায় শুভেন্দুর ঘনিষ্ঠ নেতারা বিজেপির সাংগঠনিক পদে খুব একটা জায়গা পাননি।

নতুন যুদ্ধে ফিরতে চায় বিজেপি

নতুন যুদ্ধে ফিরতে চায় বিজেপি

শুধু শুভেন্দু গড় নয়, বিজেপির রদবদল অনেক ক্ষেত্রেই বিদ্রোহের জন্ম দিয়েছে। মতুয়া মহলে বিজেপির পাঁচজন বিধায়ক দলের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ ছেড়ে কড়া বার্তা পাঠিয়েছেন। রাজ্য কমিটির বদলি এবং 30 জেলা সভাপতিদের অপসারণ নিয়ে রাজ্যজুড়ে প্রভাব পড়েছে। বিজেপি নতুন দল গঠন করে জেলা পৌর নির্বাচনে ঝাঁপিয়ে পড়তে চায়। সে লক্ষ্যে মোট ৪২টি সাংগঠনিক জেলা তৈরি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে ৩০ জনকে রদবদল করে নতুন যুদ্ধে ফেরার চেষ্টা করছে বিজেপি।

Leave a Comment