Google Oneindia Bengali News

গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে সেখানে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীও মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় গঙ্গাসাগরে কপিলমুনির আশ্রমে প্রণাম জানাবেন।

পশ্চিমবঙ্গ

হাই-কৌসিক সিনহা

গুগল ওয়ানইন্ডিয়া বাংলা খবর

বছরের শেষ দিকে আবারও ঝড় বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে বাংলায়। আবহাওয়া খারাপ হতে পারে। আর এতে হেলিকপ্টার ওড়াতে সমস্যা হতে পারে। আর সেই দিকে তাকিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সফরসূচীতে কিছু কাটছাঁট করা হয়েছে। বুধবার নয়, মঙ্গলবার গঙ্গায় পৌঁছচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। আজ গঙ্গায় প্রশাসনিক বৈঠকে বসেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সফরসূচির বদলে মঙ্গলবার গঙ্গায় উড়ে যাচ্ছেন মমতা

সংশ্লিষ্ট একাধিক জেলার জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। মূলত মেলার প্রস্তুতি নিয়েই এই বৈঠক। সেখানে এমনটাই বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

গঙ্গাসাগর মেলার প্রস্তুতি দেখতে সেখানে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীও মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় গঙ্গাসাগরে কপিলমুনির আশ্রমে প্রণাম জানাবেন। জানা গিয়েছে, কলকাতা থেকে হেলিকপ্টারে সরাসরি গঙ্গায় যাবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জানা গেছে, মেলার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখার পাশাপাশি তিনি সেখানে প্রশাসনিক বৈঠকও করতে পারেন। আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, পশ্চিমী ঝড়ের জেরে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের বেশিরভাগ জায়গায় বৃষ্টি হবে। আর সেই দিকে তাকিয়ে একদিন আগেই গঙ্গায় পৌঁছে যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী।

অন্যদিকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেলার জন্য আগাম প্রস্তুতি নিতে একগুচ্ছ নির্দেশ দিয়েছেন। গঙ্গাসাগর মেলায় কোনো দুর্ঘটনা এড়াতে ব্যাপকভাবে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করা হচ্ছে। বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীরও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। ডায়মন্ড হারবার হাসপাতালকেও প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

15 জানুয়ারী সকালে পুনরায় স্নান। আর এই গঙ্গাসাগর মেলাকে কেন্দ্র করে সারা দেশের সাধু-সন্তরা এবং সাধারণ মানুষ জড়ো হন কলকাতায়। এখান থেকে তারা বিভিন্নভাবে সাগরে পৌঁছায়। আজকের বৈঠকে পরিবহন ব্যবস্থা সুষ্ঠু রাখতে আলোচনা হয়। মন্ত্রীদের মধ্যেও মেলার দায়িত্ব ভাগাভাগি করেন মমতা।

তবে বৈঠকে সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের অনুপস্থিতিতে একটু আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন তিনি। তিনি বলেন, সুব্রত একাই অনেক কাজ সামলাতেন।

এছাড়া ১০টি অস্থায়ী ফায়ার স্টেশন প্রস্তুত করা হচ্ছে। মেলার মাঠ পরিষ্কার রাখতে ১০ হাজারের বেশি টয়লেট নির্মাণ করা হচ্ছে। মানুষ যাতে নির্বিঘ্নে সমুদ্রে পৌঁছাতে পারে সেজন্য অতিরিক্ত ট্রেন চালানো হবে বলেও জানান তিনি। তবে মেলার ৭ দিন অতিরিক্ত ৬০টি ট্রেন চলবে।

কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের সঙ্গে সমন্বয় করার নির্দেশও দিয়েছেন তিনি। তিনি সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা ম্যাজিস্ট্রেটসহ পুলিশ কর্মকর্তাদের একাধিক নির্দেশনাও দেন। অন্যদিকে, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ইংরেজি সারাংশ

বাংলায় বৃষ্টি ও ঝড়ের সতর্কতা, মঙ্গলবার গঙ্গাসাগরে যাবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Leave a Comment