Google Oneindia Bengali News

কলকাতা পৌরসভা নির্বাচনে একাধিক জায়গায় উত্তেজনা, কলকাতা পৌর নির্বাচন আপডেট খবর

কলকাতা

oi-বহিনী সান্যাল দত্ত

গুগল ওয়ানইন্ডিয়া বাংলা খবর

কলকাতা পুরসভা নির্বাচনের সকাল থেকেই বেশ কয়েকটি বুথে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। বাগবাজারের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে এজেন্ট হিসেবে বসতে বাধা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। বিজেপি প্রার্থীর কাছে যান এবং নির্দল প্রার্থীকে বুথে ঢুকতে দিন। এ নিয়ে উত্তেজনা শুরু হয়। অন্যদিকে, 100 নম্বর ওয়ার্ডে কংগ্রেসের এজেন্টকে বসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে। 36 নম্বর ওয়ার্ডে কংগ্রেস ও বিজেপির এজেন্টদের বাধা দেওয়ার অভিযোগও উঠেছে।

    K‌MC নির্বাচন 2021: স্বতন্ত্র প্রার্থীকে 7 নম্বর ওয়ার্ডে এজেন্ট হতে বাধা দেওয়া হয়েছে, 100 নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থীর সঙ্গে ঝগড়া

বাগবাজারের ৭ নম্বর বুথে শুরুতেই উত্তেজনা। স্বতন্ত্র প্রার্থীদের বুথে ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। তাকে জোরপূর্বক বুথ থেকে উচ্ছেদ করা হবে। এতে তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পদে বসেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। শেষ পর্যন্ত বিজেপি প্রার্থী ব্রজেশ ঝা গিয়ে নির্দল প্রার্থীকে বুথের ভিতরে নিয়ে যান। এতে শেষ পর্যন্ত তীব্র উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এরপর পুলিশের হস্তক্ষেপে সমস্যার সমাধান হয়।

বাগবাজারে পুলিশের সঙ্গে বিজেপি প্রার্থীর ধস্তাধস্তি শুরু হয়। এতে ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। পুলিশ বিক্ষোভ মিছিল করলে এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। এরপরই বিজেপি ও তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। এতে এলাকায় বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়। কলকাতা পুলিশ এলাকা খালি করার চেষ্টা করছে। কেন একজন স্বতন্ত্র প্রার্থীকে এজেন্ট হতে দেওয়া হবে না তা নিয়ে সোচ্চার হয়েছেন বিজেপি প্রার্থী। প্রিসাইডিং অফিসারের বদলির দাবি জানিয়েছেন বিজেপি প্রার্থী।

এদিকে, 100 নম্বর ওয়ার্ডে মুকুল বোস স্কুলে তীব্র উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে বেআইনি সমাবেশের অভিযোগ। বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পর পুলিশ সমাবেশ থেকে সরিয়ে দেয়। ভোট শুরুর আগে থেকেই ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে উত্তেজনা বিরাজ করছে। 38 নম্বর ওয়ার্ডের শিয়ালদহের টাকি বয়েজ স্কুলের কাছে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। কংগ্রেসের এজেন্টদের বুথে বসতে বাধ্য করার অভিযোগ। কংগ্রেস এজেন্টকে মারধরের অভিযোগও ওঠে তৃণমূলের। কংগ্রেসের অভিযোগ, বুথের বাইরে হাতে লাঠি নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিল তৃণমূল দুষ্কৃতীরা। কংগ্রেস প্রার্থী নন্দন ঘোষ তাদের ধাওয়া করেন। প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধ করে কংগ্রেস সমর্থকরা।

বেলেঘাটার ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের খান্না হাইস্কুলের বুথের সিসিটিভি ক্যামেরা ঢেকে গিয়েছিল বলে অভিযোগ। বেলেঘাটায় কংগ্রেস এজেন্টদের বসতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। একাধিক বুথে কংগ্রেস ও সিপিএম এজেন্টদের বসতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। অভিযোগ রয়েছে যে তিনি 110 নম্বর ওয়ার্ডের গোরিয়ার ব্রিজের কাছে নস্কর হাইস্কুলে সিপিএম এজেন্টকে হুমকি দিয়েছেন। বুথ বাধা দেওয়ার অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে। সিপিএম প্রার্থী তনুশ্রী মণ্ডল এসে এজেন্টকে বুথে বসিয়ে দেন। যদিও তৃণমূল কংগ্রেস অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

ইংরেজি সারাংশ

কলকাতা পৌর নির্বাচনের আপডেট খবর

Leave a Comment